Nandan News
ঠাকুরগাঁওয়ের বন্ধ রেশম কারখানাটি পুনরায় চালুর  উদ্যোগ গ্রহণ

ঠাকুরগাঁওয়ের বন্ধ রেশম কারখানাটি পুনরায় চালুর উদ্যোগ গ্রহণ

জুনাইদ কবির, ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি ॥ 
প্রায় দের যুগ থেকে বন্ধ থাকা ঠাকুরগাঁওয়ের বন্ধ ঘোষিত রেশম কারখানাটির চালুর উদ্যোগ গ্রহণ করেছে ঠাকুরগাঁওয়ের জেলা প্রশাসক ড. কে এম কামরুজ্জামান সেলিম সহ ঠাকুরগাঁও রেশম উন্নয়ন বোর্ডের কর্মকতারা।
বাংলাদেশের রেশম উন্নয়ন বোর্ডের ঠাকুরগাঁও রেশম কারখানাটি প্রতিষ্ঠিত হয় একাশি দশকের দিকে। তখন থেকে এই কারখানাটি বেশ ভালোই চলছিল কিন্তু ২০০২ সালের দিকে এসে কারখানাটি ততকালিন সরকার বন্ধ ঘোষিত করেন। এতে কারখানাটির প্রায় দের শতাধিকেরও বেশি শ্রমজীবী মানুষ কর্মহীন হয়ে পরে। পুনরায় কারখানাটি চালু করার লক্ষ্যে কারখানাটি পরিদর্শন করেন ঠাকুরগাঁওয়ে ডিসি ড. কে এম কামরুজ্জামান সেলিম ।
এবিষয়ে ঠাকুরগাঁও জেলা আ.লীগের সাধারণ সম্পাদক ও জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মুহা. সাদেক কুরাইশী বলেন, আকস্মিকভাবে বিএনপি জামাত সরকার ক্ষমতায় আসার পরে এই রেশম কারখানটি বন্ধ করে দেন। ফলে কারখানার অনেক শ্রমিক বেকার হয়ে যায়। যারা গুটি পোকার চাষ করতো তারাও আজ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। বতর্মান সরকার অনেক রুগ্ন ও বন্ধ হয়ে যাওয়া শিল্প পুনরায় চালু করেছে। আমরা চাই এই সরকার আমাদের ঠাকুরগাঁওয়ে রেশম কারখানাটি চালু করার জন্য সরকারকে অবহিত করছি এবং ইতিপূর্বে আমাদের ঠাকুরগাঁও-১ আসনের সংসদ সদস্য রমেশ চন্দ্র সেন এটা চালু করার জন্য উদ্যোগ গ্রহণ করেছেন। আমরা ঠাকুরগাঁওবাসী প্রত্যাশা করছি যে, এখানে অনেক বেকার যুবক যুবতি আছে তাদের কর্মসংস্থান করার লক্ষ্যে সরকার রেশম কারখানাটি অচিরেই চালু করবেন এটা আমাদের সবার প্রত্যাশা।
এদিকে ঠাকুরগাঁও সরকারি মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ আবু বক্কর ছিদ্দিক স্মৃতিচারণ করে বলেন, ঠাকুরগাঁওয়ে রেশম কারখানা থেকে ১৯৮৫ সালে আমি আমার নতুন বউয়ের জন্য রেশম এর একটি শাড়ি ক্রয় করেছিলাম। এই কারখানাটি ২০০২ সালে বন্ধ হয়ে যাওয়ায় অনেক শ্রমিক কর্মহীন হয়ে যায় ও এই কারখানার সাথে সম্পৃক্ত থাকা প্রত্যন্ত গ্রাম পর্যায়ের হত দরিদ্র মানুষ যারা রেশম গুটি উৎপাদন করে তাদের
জীবিকা নির্বাহ করতো। আমি সদাসয় সরকারের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি যেন 

ঠাকুরগাঁওয়ে রেশম কারখানাটি আবার পুনরায় চালু করার। ইতিমধ্যে প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনা ঠাকুরগাঁওয়ে সফরকালে এই কারখানাটি তারাতারি চালু করা যায় এবিষয়ে পরামর্শ দিয়েছিলেন। প্রধান মন্ত্রীর এই বক্তব্য ও এই প্রস্তাব বাস্তবায়নের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি। এই কারখানাটি চালু হলে ঠাকুরগাঁওসহ সমগ্র বাংলাদেশ উপকৃত হবে। কারখানা চালুর বিষয়ে বাংলাদেশ রেশম উন্নয়ন বোর্ড ঠাকুরগাঁও জোনাল কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক আকবর হোসেন বলেন, বর্তমান সরকার রাজশাহী রেশম কারখানাটি চাল করেছেন তার পরিপ্রেক্ষিতে ঠাকুরগাঁওয়ের কারখানাটিও চালু করার উদ্যোগ নিয়েছেন জেলা প্রশাসক ড. কে এম কামরুজ্জামান সেলিম।
কারখানাটি চালু হলে অত্রএলাকার প্রায় শতাধিক মানুষের কর্মসংস্থান হবে এবং দেশের রেশম কাপড়ের চাহিদা পুরণ করে বিদেশেও রেশম বস্ত্র রপ্তানি করা সম্ভব হবে ও দেশ আর্থিকভাকে লাভবান হবে।
রেশম কারখানাটি পুনরায় চালু করার খবর জানতে পারে ঠাকুরগাঁওয়ের সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব মাসুদ আহম্মেদ সুবর্ণ বলেন, ঠাকুরগাঁওয়ের আর্থসামাজিক অবস্থায় এ অঞ্চলের অত্যন্ত সম্ভাবনাময় শিল্প হলো রেশম শিল্প। গ্রামবাংলার খেটে খাওয়া মানুষের একেবারেই নিবির তত্বাবধানে অনেক আগেই গড়ে উঠেছে রেশম শিল্প। রেশমকে ঘিরে ঠাকুরগাঁওয়ে তৈরি হয়েছিল রেশম করাখানা। এসময় ঠাকুরগাঁওয়ে অনেক মানুষ এই শিল্পের সাথে জড়িত ছিলেন। অন্যান্য শিল্পের মধ্যে এ অঞ্চলে রেশম শিল্প অন্যান্য উপাদান হিসেবে মানুষের কাছে সমাধিত ছিল। কিন্তু বিভিন্ন কারণে এই কারখানাটি বন্ধ হয়ে যায়। ইতিপূর্বে এর আগে এই কারখানাটি
চালু করার জন্য উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছিল অনেক বার কিন্তু তা এখনো বাস্তবায়ন হয়নি। এবারও শোনা যাচ্ছে যে, ঠাকুরগাঁওয়ের জেলা প্রশাসক এটি চালু করার উদ্যোগ গ্রহণ করেছেন। ঠাকরগাঁও জেলা প্রশাসক মহদয় রেশম কারখানাটি চালু করার যে চেষ্টা করছেন তার চেষ্টার সাথে আমরা একমত ও সহমত পোষণ করে বলছি সরকার যেন জেলা প্রশাসকের এই চেষ্টাকে বাস্তবায়ন করার জন্য কার্যকরি ভুমিকা
পালন করবেন। এবিষয়ে ঠাকুরগাঁওয়ের জেলা প্রশাসক ড. কে এম কামরুজ্জামান সেলিম বলেন, ঐতিহ্য ও সম্ভাবনার জনপদ ঠাকুরগাঁও যেমন কৃষি পণ্যের জন্য অত্যন্ত বিখ্যাত। সব ধরণের কৃষিজাত পণ্য এখানে বাম্পার ফলন হয়। তেমনি একসময় এখানে রেশম শিল্পও বিখ্যাত ছিল। সে কারণেই ১৯৮১ সালে এখানে রেশম কারখানা স্থাপন হয় এবং কারখানাটি খুব সফলতার সাথেই ২০০২ সাল পর্যন্ত চলমান ছিল। পরবর্তীতে
ততকালিন সরকার অদূরদর্শী সিদ্ধান্তের কারণে কারখানাটি বন্ধ হয়ে যায় এবং এটি অনেক দিন থেকে বন্ধ হয়ে আছে। এ কারখানটি যদি আমরা চালু করতে পারতাম ও

চালু রাখতে পারতাম তাহলে এখানে কর্মসংস্থান ও আর্থসামাজিক উন্নয়নে কারখানাটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতো। ঠাকুরগাঁওবাসীর জন্য যেমন ভুমিকা রাখত তেমনি সমগ্র বাংলাদেশের জন্যেও ভূমিকা রাখতো। আমরা নতুন করে আবার এই কারখানাটি চালু করার উদ্যোগ গ্রহণ করেছি। অনতিবিলম্বে আমরা একটি চিঠি মন্ত্রণালয়ে প্রেরণ করবো।

তিনি আরও বলেন, এছাড়াও আমরা জেলা প্রশাসকের সম্মেলন এ রেশম কারখানাটি চালু করার বিষয়ে সরকারের উর্দ্ধোতন কর্মকর্তার ও কর্তৃপক্ষের কাছে আবেদন করবো। কারণ সব অবকাঠামোই এখানে আছে যাবতীয় সকল যন্ত্রপাতিও আছে। রাণীশংকৈল ও হরিপুর উপজেলায় এখনো রেশম চাষ হয় কিন্তু এই রমেটিয়াস গুলো রাজশাহীতে প্রেরণ করতে হচ্ছে। রাজশাহীতে প্রেরণ না করে এগুলোকে প্রক্রিয়াজাত করে সুতা উৎপাদন করে আমরা যদি ঠাকুরগাঁওয়ের রেশম কারখানায় বস্ত্র তৈরি করি তাহলে এটা ঠাকুরগাঁওবাসীর বেকারদের কর্মসংস্থান সহ দেশের আর্থসামাজিকে অত্যন্ত অবদান ও অগ্রণী ভূমিকা রাখবে।

RoseBrand

Related News

Nandan News

শেখ হাসিনা ‘বাংলাদেশের স্বার্থ বিক্রি করবে এটা হতে পারে না’

বাংলাদেশের কোন স্বার্থ বিক্রি করবে এটা কখনও শেখ হাসিনা হতে দিতে পারে না। গণভবনে নিউ ইয়র্ক ও দিল্লি সফর শেষে গণভবনে আয়োজিত সংবাদ সন্মেলনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিন...

বাংলাদেশে বিনিয়োগ করতে প্রধানমন্ত্রীর আহ্বান

ভারতীয় বিনিয়োগকারীদের বাংলাদেশে শিল্প কারখানা স্থাপন এবং সেখানে উৎপাদিত পণ্য ভারত ও দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার দেশসমূহের বিশাল বাজারে রপ্তানি করার আহ্বান জানিয়েছেন...

সেপ্টেম্বরে প্রবাসীরা পাঠিয়েছন ১৪৬ কোটি ৮৪ লাখ ডলার

চলতি (২০১৯-২০) অর্থবছরের সেপ্টেম্বর মাসে প্রবাসীরা ১৪৬ কোটি ৮৪ লাখ ডলার রেমিট্যান্স পাঠিয়েছেন। এটি তার আগের মাস আগস্টের চেয়ে ২ কোটি ৩৭ লাখ ডলার বেশি।ওই মাসে প্র...

কালিয়াকৈরে নদীতে গোসল করতে গিয়ে স্কুল ছাত্র নিখোঁজ

ফজলে রাব্বি, কালিয়াকৈর প্রতিনিধি গাজীপুরের কালিয়াকৈরের  লতিফপুর এলাকায় ঘাটাখালি নদীতে গোসল করতে গিয়ে এক স্কুলছাত্র নিখোঁজের  ঘটনা ঘটেছে। সে...

ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি টিটো দত্ত, সাঃ সম্পাদক মোশারুল

ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি টিটো দত্ত, সাঃ সম্পাদক মোশারুলজুনাইদ কবির,ঠাকুরগাঁও জেলা  প্রতিনিধি : দীর্ঘ ৬ বছর পর ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলা আওয়ামী ল...

টাঙ্গাইলের ভূঞাপুরে ভেজাল বিরোধী অভিযান

মাহমুদুল হাসান:ভূঞাপুর (টাঙ্গাইল) প্রতিনিধি: টাঙ্গাইলের ভূঞাপুরে ভেজাল বিরোধী অভিযান পরিচালনা করে ১১ প্রতিষ্ঠানকে ২২ হাজার ৫০০ টাকা জরিমানা করেছে ভ্রাম্যমা...

LIVE TV